৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বাকে গলা কেটে হত্যা, গ্রেফতার স্বামী

৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বাকে গলা কেটে হত্যা, গ্রেফতার স্বামী

অনলাইন ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় রাবেয়া বেগম (৩৫) নামে চার সন্তানের জননী সাত মাসের গর্ভবতী গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী সোহেল আহমেদ অপুকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুর ১টায় ফতুল্লার শান্তিনগর এলাকার সেলিম মিয়ার ভাড়াটিয়া বাসা থেকে রাবেয়া বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ভিক্টোরিয়া হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।

নিহত রাবেয়া বেগম ভোলা জেলার দক্ষিণ আইচা থানার তাল্লুক কান্দা গ্রামের তোফাজ্জল সিকদারের মেয়ে। সে স্বামী ও সন্তানদের নিয়ে ফতুল্লার হরিহর পাড়া শান্তিনগর দুলাল মিয়ার বাড়ির ভাড়াটিয়া বাসায় বসবাস করেন।

নিহতের স্বামী সোহেল আহমেদ অপু বরিশাল জেলার কোতয়ালী থানার চর নিহালগঞ্জ গ্রামের মোস্তফা হাওলাদারের ছেলে।

অপু জানান, তার স্ত্রী রাবেয়া বেগম সুদে টাকা দিতেন লোকজনকে এবং বিভিন্নজনের সঙ্গে ফোনে কথা বলতেন। এ নিয়ে দেড় মাস আগে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া করে চার পুত্র সন্তানকে বাসায় রেখে বাহিরে নানা জনের বাসায় থাকেন এবং গার্মেন্টসে কাজ করেন।

বাড়ির লোকজন জানান, সোমবার রাতে অপুকে বাসায় আসতে দেখেছেন তারা। মঙ্গলবার সকালে তার স্ত্রীর গলা কাটা লাশ ঘরের ভিতর পাওয়া যায়।

তার শিশু সন্তানরা বলেন, তাদের মা বাবা এক রুমে থাকেন আর তারা পাশের আরেকটি রুমে থাকেন। রাতে তার বাবা বাসায় এসেছিল। রাতের কখন তাদের মাকে হত্যা করা হয়েছে তারা জানে না। তখন তারা ঘুমে ছিল।

ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান জানান, বিষয়টি তদন্ত চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here