কুমিল্লা ডিসি অফিসে কর্মচারীদের কর্মবিরতি

কুমিল্লা ডিসি অফিসে কর্মচারীদের কর্মবিরতি

অনলাইন ডেস্কঃ প্রস্তাবিত পদনাম পরিবর্তন ও বেতন গ্রেড উন্নীতকরণের দাবিতে কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে পূর্ণ দিবস কর্মবিরতি পালন করা হয়েছে। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন দূরদূরান্ত থেকে আগত সেবাগ্রহীতারা।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে কর্মবিরতি শুরু হয়। শেষ হয় বিকেল ৫টায়। দাবি মেনে না নেওয়া পর্যন্ত এই কর্মসূচি পালন করবেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ কালেক্টরেট সহকারী সমিতি কুমিল্লা জেলা শাখার সদস্যরা।

সূত্র জানায়, বাংলাদেশ কালেক্টরেট সহকারী সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির ঘোষণা অনুযায়ী ৬৪ জেলায় কালেক্টরেটের কর্মচারীরা মঙ্গলবার থেকে পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালন শুরু করেছেন।

মঙ্গলবার কর্মবিরতির প্রথম দিনে কুমিল্লা কালেক্টরেটের আওতাধীন ১৭ টি ইউএনও এসিল্যান্ড ও ভূমি অফিসের সকল কর্মচারীরা একযোগে তাদের অফিস প্রাঙ্গণে জড়ো হন। সকাল ৯টায় হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে কর্মসূচিতে যোগ দেন।

সভায় বক্তব্য রাখেন কালেক্টরেট সহকারী সমিতি কুমিল্লা জেলা শাখার সভাপতি মো. আবু হানিফ, সিনিয়র সহ-সভাপতি সুলতান মো. নাছির উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মো. আরিফুর রহমান, সহ-সভাপতি মো. আবু বক্কর ছিদ্দিক হেলাল, আবদুর রহিম, হাবিবুর রহমান, মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া, ছফিউল্লাহ মীর, জসিম উদ্দিন, হালিমা খাতুন, সহ-সাধারণ সম্পাদক ইমাম উদ্দিন ইউসুফ মজুমদার, সদস্য সাইফুল ইসলাম মুন্সী, অর্থ সম্পাদক আমান উল্লাহ, সদস্য আবুল বাসার, আবদুল মান্নান, কুলসুম আক্তার মীনা প্রমুখ।

বক্তারা প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন অনুযায়ী তাদের দাবি পূরণের আহ্বান জানান। তারা বলেন, একই দেশে দুই নীতি অবলম্বন করা হয়েছে। সচিবালয়ের কর্মচারীরা একই পদে সমযোগ্যতা নিয়ে চাকরিতে প্রবেশ করে উপ-সচিব (ননক্যাডার) পর্যন্ত হতে পারে। কিন্তু মাঠ প্রশাসনের কর্মচারীরা ৩০/৩৫ বছর একই পদে চাকরি করে অবসর নিতে হয়। এ বৈষম্য থেকে বের হয়ে আসার জন্য তারা সরকারের কাছে অনুরোধ জানান।

বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়, উপজেলা ভূমি অফিসের ৩য় শ্রেণির সকল কর্মচারীরা এই কর্মসূচি পালন করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here